মেথি খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা - মেথি খাওয়ার নিয়ম

মেথি খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা ও মেথি খাওয়ার নিয়ম - প্রিয় পাঠক, আজকের পোস্টে মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করবো। মেথি এক ধরনের ভেষজ ওষুধ। মেথির পাতা শাক হিসাবে সবাই খেয়ে থাকি। মেথির বীজ নানা কাজে ব্যবহার করা হয়। মেথি আমাদের শরীরের জন্য বেশ উপকারী। মেথি মসলা, ঔষধ বিভিন্ন রোগের জন্য চিকিৎসা কাজে ব্যবহার হয়ে থাকে। আসুন তাহলে জেনে নেয়া যাক, মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে ।

মেথি খাওয়ার ১৭টি উপকারিতা সম্পর্কে জানুন

পাঠক, আপনারা নিশ্চয়ই জানতে চেয়েছেন মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। আজকের পোস্টে আমরা মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে আপনাদের সামনে বিশেষ তথ্য নিয়ে এসেছি। দৈনন্দিন জীবনে আমরা রান্নার কাজে মেথি মশলা হিসেবে ব্যবহার করে থাকি। এছাড়াও মেথি বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা রাখে

মেথি খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা - মেথি খাওয়ার নিয়ম 'উপস্থাপনা'

প্রাচীন কাল থেকে মেথির ব্যবহার চলে আসছে। রান্নার কাজে আমরা মেথি মসলা হিসেবে ব্যবহার করে থাকি। মেথি রয়েছে মানবদেহের জন্য বিশেষ পুষ্টিকর উপাদান। মেথি আমাদের শরীরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। আজকের এই পোস্টটিতে আমরা মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে আপনাদের জানাবো।

মেথি খাওয়ার ১৭টি উপকারিতা 

মেথি পাতা শাক | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

গ্রাম বাংলার অতি পরিচিত একটি নাম হলো মেথি পাতার শাক। মেথি গাছের পাতা শাক হিসেবে খাওয়া যায়। যা আমাদের শরীরের জন্য উপকারী।

মেথি রান্নার মসলা | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথি পরোটা, মেথি ভাজি, মেথি পনির, মেথি থেপলা, আলু মেথি, রুটি, ইডলি, ও ডোসা সুস্বাদু রান্নার কথা মাথায় আসলে মেথির কথা মনে পড়ে যায়। এছাড়া অত্যন্ত পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ মেথির বীজ রান্নার মসলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথিতে থাকা আন্টি অক্সিডেন্ট রক্ত চলাচল করতে সাহায্য করে। ফলে আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

রক্তের গ্লোকজ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে  | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

যাদের রক্তের গ্লোকজ ও ডায়াবেটিস সমস্যায় ভুগছেন তারা কিছু পরিমাণ মেথি এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন। রক্তের গ্লোকজ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

ত্বক ভেতর থেকে উজ্জ্বল করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা 

মেথি ত্বকের পোড়া ভাব দূর করে উজ্জলতা ফিরিয়ে আনে। ত্বকের সুন্দরতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

জ্বর ও খুসখুসে গলা  | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

লেবুর রস ও মধু এবং এক চামচ মেথি মিশিয়ে খান তাহলে জ্বর ও খুসখুসে গলা ভালো হয়ে যাবে।

মায়ের বুকের দুধ বাড়াতে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথির বিজে থাকা ফাইটোইস্ট্রোজেন মায়ের বুকের দুধের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। মেথি বীজের চা পান করলে মায়ের বুকের দুধের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

মাথার খুশকি দূর করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মাথার স্ক্যাল্পে মেথি পেস্ট করে ব্যবহার করতে হয়। সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করুন। তাহলে দ্রুত ফল পাওয়া যায় এবং মাথার খুশকি দূর করে।

হজম শক্তি বৃদ্ধি করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

যাদের পেটে জ্বালা হজমে সমস্যা আছে। তারা নিয়মিত মেথি খেতে পারেন । এতে হজমের সমস্যা ও বুক জ্বালাপোড়া ইত্যাদি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। এতে রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট,ফাইবার যা হজম শক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

চুল পড়া রোধ করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথি চুল পড়া রোধে বেশ কার্যকরী । চুলের গোড়া মজবুত করতে সাহায্য করে। মেথি সারা রাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে মাথায় চুলে ব্যবহার করবেন। তাহলে চুল পড়া বন্ধ হবে এবং চুল লম্বা করতে সাহায্য করবে। মেথিতে রয়েছে নিকোটিন এসিড ও লেসিথিন নামক দুটি উপাদান চুল ঘন করতে সাহায্য করে। 

ওজন কমাতে সাহায্য করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথিতে রয়েছে ফাইবার প্রতিদিন এক গ্লাস পানিতে এক টেবিল অর্ধেক চামচ সারারাত ভিজিয়ে রাখুন সকালে তা খাবেন। এভাবে কয়েকদিন নিয়ম করে খাবেন। দেখবেন শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করছে।

চামড়ার ইনফেকশন | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথিতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল আছে। যা চামড়ার ইনফেকশন দূর করতে সাহায্য করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মিথি রক্তে ভেসে বেড়ানোর টক্সিনকে দূর করে শরীরকে থেকে বের করে দিতে সাহায্য করে। ফলে ক্যান্সার কোষ জন্ম নেওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা। তাছাড়া ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

হূদযন্ত্রের কার্যকারিতা | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথিতে থাকা পটাশিয়াম রক্তে লবণের পরিমাণ কমায় ফলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়।

আমাশয় রাধে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথির গুঁড়া এক গ্লাস পানিতে কিছু পরিমাণ নিয়ে খেলে আমাশয় রোধে সাহায্য করে।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথি খেলে লিভার ভালো থাকে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে | মেথি খাওয়ার উপকারিতা

মেথিতে রয়েছে স্টেরিওডাল সেপনিনস একটি উপাদান। যা শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।

১০০ গ্রাম মেথিতে পুষ্টিগুণ রয়েছে

উপাদান               পরিমাণ

চর্বি                              ৬    গ্রাম

পটাশিয়াম                   ৬৭  মিলিগ্রাম 

শর্করা                          ৫৮  মিলিগ্রাম 

আমিষ                         ২৩  মিলিগ্রাম

সোডিয়াম                    ৭৭০মিলিগ্রাম

ফাইবার                        ২৫  গ্রাম

উপাদান                    শতকরা

ভিটামিন 'সি                   ৫    %

ক্যালসিয়াম                    ১৭  %

ভিটামিন 'বি6                  ৩০ %

ম্যাগনেসিয়াম                 ৪৭ %

মেথি খাওয়ার সঠিক নিয়ম

প্রিয় ভিউয়ার, আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জানেন। কিন্তু মেথি খাওয়ার সঠিক নিয়ম সম্পর্কে অবগত নন। তাদের জন্য আমাদের আজকের আর্টিকেল এই পর্বে থাকছে মেথি খাওয়ার সঠিক নিয়ম সম্পর্কে।

  • একটি শুকনো প্যানে, মেথি বীজ পিষে নিন। বীজ তারপর মাটি হয়। কুসুম গরম পানি ও এক চা চামচ গুঁড়ো মেথি বীজ মিশিয়ে নিতে হবে। আপনার শরীর এই কম্বোতে সাড়া দেবে যেন জাদু দ্বারা।
  • রক্তে শর্করার নিয়ন্ত্রণ মেথি জলের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। এটি কিডনি এবং লিভারের স্বাস্থ্য বজায় রাখে।
  • মেথি বীজের পুষ্টিগুণ চুলের বিকাশে সাহায্য করে। খুশকি থেকে মুক্তি পায়।
  • মেথির সাথে মিশ্রিত জল দ্রুত ওজন কমাতে সাহায্য করে। এই পানীয় খেলে ক্ষুধা কমে যায়।
  • মেথির বীজকে পেস্ট করে অল্প পরিমাণে মধু দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। ওজন কমাতে এটি সাহায্য করবে।
  • সকালে খালি পেটে প্রথমে মেথির জল খেলে তা ওজন কমাতে সাহায্য করে। মেথি বীজ সারারাত এক চা চামচ পানিতে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন খেতে পারেন। আরও বেশি উপকার পাওয়ার জন্য, এই মেথির জল দিনে দুবার খাওয়া ভাল।
  • মেথি আরও বুকের দুধ উৎপাদনে সাহায্য করে, যা নবজাতকের জন্য ভালো, গবেষণা অনুসারে। উপরন্তু, মেথি রক্তে শর্করার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।
  • রক্তে শর্করার নিয়ন্ত্রণ মেথি জলের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। কিডনি এবং লিভার ভালো অবস্থায় রাখে।

মেথি খাওয়ার অপকারিতা

মেথি খাওয়ার যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারিতা রয়েছে। তেমনি মেথি খাওয়ার আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক অপকারিতাও রয়েছে। তাই মেথি খাওয়ার পূর্বে অবশ্যই আমাদের মেথি খাওয়ার অপকারিতা সম্পর্কে জানতে হবে আপনাদের সুবিধার্থে নিচে মেথি খাওয়ার অপকারিতা সম্পর্কে দেওয়া হল।
  • মেথি মুখের ভেতরে তিতা স্বাদের প্রদাহ তৈরি করে। যার ফলে অনেকেরই বমি বমি ভাব বা মাথা ঘোরার সমস্যা দেখা দেয়।
  • নিয়মিত মেথি খেলে ডায়রিয়ার মত সমস্যা দেখা দিতে পারে।
  • তাদের বয়স ৩০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তারা মেথি খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন। কারণ বেশি খাওয়ার ফলে আপনাদের হার্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে।
  • এটির ব্যবহারে রক্তে চিনির পরিমাণ হঠাৎ কমে যেতে পারে যা ডায়বেটিস রোগীদের বিপদজ্জনক।
  • যাদের নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা হয়। তারা মেখে খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন। কারণ মেথি অতিরিক্ত নিঃশ্বাস বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।
  • রক্তের জমাট বাঁধা প্রতিরোধ করে। 
  • গর্ভবতী মায়েরা বেশিদিন এটি খেলে সময়ের আগেই বাচ্চার জন্ম হতে পারে।

সর্বশেষ কথা - মেথি খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা - মেথি খাওয়ার নিয়ম

পাঠক, নিশ্চয়ই আপনাদের বুঝতে পেরেছি মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। আজকের এই পোস্টে আমরা মেথি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে আপনাদের সামনে বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেছি। মেথিতে অপকারিতার চাইতে উপকারিতা অনেক রয়েছে। রান্নার কাজ থেকে শুরু করে আপনার ত্বকের পরিচর্যা ও বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে মেথি বিশেষ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থেকে পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Next Post Previous Post