তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় - তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম

আজকের এই পোস্টে আমরা জেনে নেব তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় সেই সম্পর্কে। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা সঠিকভাবে জানেন না তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়, তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে তাদের সুবিধার্থে তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় সেটি আলোচনা করব। একই সাথে এই পোস্ট টি পড়ে আরো জানতে পারবেন তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম, তাল মিছরি উপকারিতা, তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা, তাল মিছরি দাম, আসল তাল মিছরি চেনার উপায় ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে।

 আপনার জন্য আরও কিছু জনপ্রিয় পোস্ট

তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়

তাহলে চলুন আর দেরি না করে জেনে নেই, তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়, তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম, তাল মিছরি উপকারিতা, তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা, তাল মিছরি দাম, আসল তাল মিছরি চেনার উপায় ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে।  

পোস্ট সূচিপত্রঃ তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় - তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম

তাল মিছরি কি?

মিছরি এক ধরনের মিষ্টি জাতীয় দানাদার পদার্থ যা প্রাকৃতিক ভাবে তৈরি মিষ্টি।মিছরি সাধারনত দুই ধরনের হয়ে থাকে চিনির মিছরি ও তাল মিছরি। মিছরি তৈরিতে তাল বা আখের রস জ্বাল দেওয়া হয় একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত। চিনির মিছরি আখের রস এবং তাল মিছরি তালের রস দিয়ে তৈরি করা হয়।

সুতরাং আমরা তাল মিছরি কে এভাবে বলতে পারি, তাল মিছরি হল খাঁটি তালের রস দিয়ে তৈরি মিছরি।তাল মিছরি কে আনপ্রসেসড সুগারও বলে।

তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়?

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা সঠিকভাবে জানেন না তাল মিছরি কি এবং তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় সেই সম্পর্ক। তারা এখন সহজেই জানতে পারবেন তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় সেই সম্পর্কে।

আরো পড়ুনঃ স্ট্রবেরি খাওয়ার উপকারিতা স্ট্রবেরি খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিন

তাল মিছরি তৈরি হয় খাঁটি তালের রস থেকে। তাল থেকে প্রথমে তালের রস তৈরি করা। এরপর সেই তালের রস জাল দেওয়া হয় একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত এবং গুড়ের মত হয়ে যায়। এরপর একটি লম্বাটে টাইপের ট্রে এর মত পাত্রে রাখা হয়। এরপর একটি বদ্ধ ঘরে একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় ট্রেগুলিকে চট দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। এক সপ্তাহ পরে দেখলে দেখা যায় ট্রে এর ওপরে ও নিচের অংশগুলি শুকিয়ে দানাতে পরিণত হয়,অর্থাত্‍ তালমিছরিতে পরিণত হয়।মাঝের লেয়ারটি তখনও নরম এবং জলীয় ভাব থাকে এবং সেটিকে বিশেষ উপায়ে আলাদা করে নেওয়া হয়। মিছরি তৈরি করার মউসুম মোটে চারটি। চৈত্রের মাঝামাঝি থেকে শ্রাবণের প্রথমার্দ্ধ,এই সময়েই বানানো হয় তালমিছরি।এভাবেই তৈরি হয় আমাদের অতিপরিচিত তালমিছরি। আশা করি বুঝতে পেরেছেন তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়।

তাল মিছরি উপকারিতা | তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা

এখন আমরা জেনে নেব তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্ক। তাল মিছরি গুনাগুন যদি আমরা পর্যালোচনা করি তাহলে আমরা দেখতে পাই, তাল মিছরিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে এসেনশিয়াল ভিটামিনস, মিনারেলস, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, আইরন, জিঙ্ক, ফসফরাস আর আমাইনো অ্যাসিডস।এছাড়াও অল্প লভ্য ভিটামিন বি ১২, এছাড়াও এতে আছে ২৪ টি প্রাকৃতিক উপাদান। যার জন্য এটি আয়ুর্বেদিক ওষুধি তৈরির ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়।

  • বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ক্যালসিয়ামের অভাবে নানা রকম হাড়ের সমস্যা দেখা দিতে থাকে। হাড় ক্ষয় এর সাথে হাটু ব্যথা হয়ে থাকে। এ ধরণের নানা সমস্যার সঙ্গে আমরা সকলেই পরিচিত।তাল মিছরিতে রয়েছে ক্যালসিয়াম ও পটাশিয়াম যা হাড় ও দাঁত শক্ত করে তোলে ও হাড়ের নানা রকম সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। যেই কারণে বলা যায় তাল মিছরি উপকারিতা অপরিসীম।
  • যে সব মানুষের অ্যানিমিয়া এর মত সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য তাল মিছরি খুবই উপকারি। কারণ তাল মিছরিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে।আয়রন রক্তের লেভেল ঠিক রাখতে সাহায্য করে।বিশেষ করে মেয়েদের জন্য তাল মিছরি খুব বেশি উপকারি। 
  • তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা আরো একটি বিশেষ ক্ষেত্রে পাওয়া যায়। তাল মিছরি সর্দি কাশি দূর করতে সাহায্য করে।তাল মিছরির রস কাশি উপশম করে ও গলার শ্লেষ্মা নরম করে দিতে সাহায্য করে। ফলে গলায় খুসখুসের কাশির সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।হালকা গরম পানিতে তাল মিছরির গুলে খেলে কাশি দূর হয় এবং গলায় জমে থাকা কফ, শ্লেষ্মা দূর হয়। এক টুকরা তাল মিছরি চুষে খেলে গলার খুসখুসে কাশি অনেকটা দূর হয়। কাশি বেশি হলে এক টুকরো তালমিছরি মুখে রাখলে অথবা তুলসী পাতার রসের সঙ্গে তালমিছরি গুলে খেলে কাশি কমে যাবে।
  • মেয়েদের মেনুপজের পর হাড় ক্ষয় হতে শুরু করে ও হাড় ভাঙার সমস্যা দেখা দেয়। এ হাড় ক্ষয় রোধ করতে নিয়মিত তাল মিছরি খাওয়া উচিত। বাচ্চাদেরও হাড় ও দাঁতের গঠন ঠিক রাখার জন্য তাল মিছরি খাওয়াতে হবে।
  • অনেকেই মনে করেন তাল মিছরি মনে হয় অনেক মিষ্টি যা সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাদের বলে রাখি তাল মিছরির মধ্যে থাকা গ্লাইসেমিক ইন্ডেক্সের মাত্রা ৩৫। গ্লুকোজ এর গ্লাইসেমিক ইন্ডেক্সের মাত্রা ১০৩ এবং মধুর গ্লাইসেমিক ইন্ডেক্সের মাত্রা ৬১ সুতরাং বুঝতেই পারছেন চিনি বা মধুর পরিবর্তে তাল মিছরি খেতে পারেন। তাল মিছরি রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়ায় না বরং নিয়ন্ত্রণে রাখে। তবে যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে তারা তাল মিছরি পরিমিত পরিমাণে খেতে পারেন।   
  • আরো একটি তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা হল তাল মিছরি চোখের দৃষ্টিশক্তি বাড়িয়ে দিতে সাহায্য করে। এ জন্য বাদাম, মৌরি, তাল মিছরি ও গোল মরিচের গুঁড়ো রোজ রাতে দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে চোখের দৃষ্টি অনেক বেড়ে যাবে।
  • তাল মিছরি কিডনির জন্য খুবই উপকারি। তাই কিডনি সুরক্ষিত রাখতে তাল মিছরি খেতে পারেন। কিডনির পাথর রোধ করতেও তাল মিছরি সাহায্য করে থাকে।
  • শুধু তাই নয়, মুখের আলসার রোধ করতে পারে তাল মিছরি। মুখের জ্বালা থেকে বাঁচতে তাল মিছরি ও এলাচ গুঁড়ো একসঙ্গে পেস্ট করে মুখের ভেতরে লাগাতে হবে। তবে মুখের আলসার অনেক কমে যাবে।
  • আরো একটি তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা হল অনেকেরই মাথা ব্যথার সমস্যা থাকে। চোখের জন্য মাথা ব্যথা খুবই সাধারণ একটি ব্যপার। এ জন্য আদার রসের সঙ্গে তাল মিছরি মিশিয়ে খেলে সাইনাসজনিত মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা গুলো। উপরিউক্ত সমস্যাগুলো আপনি আপনার শরীরে অনুভব করলে তাল মিছরি খেতে পারেন।

তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম

তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম যদি আমরা আলোচনা করি তাহলে বলতে পারি তাল মিছরি কয়েকটি উপায়ে খাওয়া যায়।

তালমিছরি মূলত চিনির মতো দেখতে এবং শুকনো জাতীয় একটি পদার্থ। এটি চকলেটের মতো বড় বড় হয়ে থাকে। এটি palm-candy ক্যান্ডি নামেও পরিচিত। কেউ যদি চাই এটি চকলেটের মতো চুষে খেতে পারেন। আবার আমরা যদি উপরের তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা গুলো দেখি সেখানে দেখতে পাই তাল মিছরি হালকা গরম পানির সঙ্গে মিশিয়ে খেলে তা গলায় জমে থাকা কফ, শ্লেষ্মা দূর করতে সাহায্য করে। 

আরো পড়ুনঃ রাম্বুটান ফল খাওয়ার ১২টি উপকারিতা জেনে নিন

আবার তাল মিছরি বিভিন্ন ধরনের মিস্টি খাবারে চিনির পরিবর্তে ব্যবহার করে খাওয়া যেতে পারে। যেমনঃ সুজি, সেরেলাক ,হালুয়া, বিস্কুট ,শরবত ,কেক, ইত্যাদি। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম গুলো।

আসল তাল মিছরি চেনার উপায়

এখন আমরা জেনে নেব আসল তাল মিছরি চেনার উপায়। মূলত তাল মিছরির মূল উপাদান খাঁটি তাল এবং সামান্য চিনি। তাল মিছরির জন্য দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরি বিখ্যাত। তাল মিছরি মূলত নিচের ছবিটির মত হয়ে থাকে।দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরি এটি। 

ছবিঃ তাল মিছরি।

দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের খাঁটি/অরিজিনাল তাল মিছরির নিউ প্যাকেজিং বোতল (প্রথম ছবিতে) যাতে খোদাই করে দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের মিছরি লিখা আছে।

দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের খাঁটি/অরিজিনাল তাল মিছরির নিউ প্যাকেজিং বোতল (দ্বিতীয় ছবিতে) যাতে এমন R চিহ্ন দেয়া থাকবে যা ভারত সরকার কর্তৃক স্বীকৃতিসূচক ট্রেডমার্ক।এমন চিহ্ন না থাকলে সেই তালমিছরি অরিজিনাল ইন্ডিয়ান/দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তালমিছরি না।

          

তাল মিছরি দাম 

আমরা এখন তাল মিছরি দাম সম্পর্কে জেনে নেব। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম তাল মিছরি দাম রয়েছে। কোনো কোনো জায়গায় অরিজিনাল তাল মিছরি পাওয়া যায়। আবার আমাদের দেশে কেউ ভেজাল তাল মিছরি তৈরি করে থাকেন।  

দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরি খুবই বিখ্যাত।দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরি মূলত ভারতে তৈরি হয়। তবে বাংলাদেশের অনেকেই এটি ইমপোর্ট করে বিক্রি করে থাকেন।দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরির দাম ৪৯০ টাকা এক কেজি।এটি কিনতে এই ওয়েবসাইট থেকে কিনতে পারেন।দুলালচন্দ্র ভাঁড়ের তাল মিছরি কিনতে এখানে ক্লিক করুন। 

এছাড়াও বিভিন্ন সেলার দারাজে বিভিন্ন দামে তাল মিছরি বিক্রি করে থাকেন। দারাজে বিভিন্ন দামে তাল মিছরি পেয়ে যাবেন।প্রতি কেজি তাল মিছরির দাম এখানে ১৫০ থেকে ৪৫০ টাকা পর্যন্ত রয়েছে। দারাজ থেকে তাল মিছরি কিনতে এখানে ক্লিক করুন।

তাল মিছরি দাম কত সেই সম্পর্কে আপনাদের একটি ধারণা দিয়েছি। তবে এসব ওয়েবসাইট থেকে পণ্য কেনার আগে ভালোমতো রিভিউ দেখে কেনার অনুরোধ রইল। এসব ওয়েবসাইটের সাথে আমাদের কোন আর্থিক সম্পর্ক নেই। 

শেষ কথাঃ | তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয় | তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম

প্রিয় পাঠক আমার এই পোস্টের শেষ দিকে চলে এসেছি। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়, তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম, তাল মিছরি দাম সম্পর্কে ইন্টারনেটে খোঁজাখুঁজি করে থাকেন তাদের সুবিধার্থে এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করেছি তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়, তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম, তাল মিছরি উপকারিতা, তাল মিছরি খাওয়ার উপকারিতা, তাল মিছরি দাম, আসল তাল মিছরি চেনার উপায় ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্ক। যেন তারা এই একটি পোষ্ট পড়ে তাল মিছরি সম্পর্কে পুরোপুরি তথ্য পেয়ে যান। 

আরো পড়ুনঃ কমলা খাওয়ার ১৫টি উপকারিতা জেনে নিন

পোষ্ট টি আপনার কাছে উপকারী বলে শেয়ার করুন আপনার আত্মীয়-স্বজন এবং বন্ধু-বান্ধবদের সাথে যেন তারা তাল মিছরি কিভাবে তৈরি হয়, তাল মিছরি খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন খুব সহজেই এই একটি পোস্ট পড়ে। ১৬৮২১ 

Next Post Previous Post