OrdinaryITPostAd

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ - জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ ও জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩ - আসসালামু আলাইকুম।সারা মুসলিম বিশ্বে ইবাদতের জন্য আরবি মাসের প্রয়োজন হয়। আরবি মাসের ১ তারিখ সাধারণত গত মাসের শেষে চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে। তাই অনেকে জানতে চাই জিলকদ মাসের চাঁদ উঠেছে কি? আবার অনেকে আছে যারা জিলকদ মাস কবে শুরু হবে তা সম্পর্কে জানতে চান। আজ আমি আপনাদের সকলের দুশ্চিন্তা দূর করে। সকল প্রশ্নের উত্তর জানাবো আমাদের আজকের আটিকেল জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ ও জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩ এই পর্বে। আর্টিকেলটি সম্পন্ন মনোযোগ সহকারে করলে আপনি দীর্ঘ মাসের সকল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন।

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ - জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত আমাদের সাথে থেকে পড়লে আপনি জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩, জিলকদ মাসের কত তারিখ ২০২৩, জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩, জিলকদ মাসের চাঁদ উঠেছে, জিলকদ মাসের বয়ান, জিলকদ মাসের ফজিলত সম্পর্কে সকল তথ্য জানতে পারবেন।

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ - জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ ও জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩ আমাদের আজকের আর্টিকেল জানার আগে জিলকদ মাস সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক। আরবি ১৪৪৪ হিজরী আরবি মাস হলো জিলকদ মাস। এই মাসে মহান আল্লাহ তাআলা তার বান্দাদের ইবাদত থেকে বিশ্রাম দিয়েছেন।

বাংলাদেশ মুসলিম একটি রাষ্ট্র। বাংলা দেশের রাষ্ট্রভাষা বাংলা। বাংলা ভাষার বাঙালি হয়ে আমাদের বাংলা মাসের ক্যালেন্ডার ও ইংরেজি ক্যালেন্ডার এর পাশাপাশি আমাদের আরবী ক্যালেন্ডারের প্রয়োজন হয়। আরবির ১১ তম মাস হল জিলকদ মাস। 

আল্লাহ তায়ালা তার বান্দাকে ইবাদত হতে বিশ্রামের জন্য এই জিলকদ মাসটি নির্ধারণ করেছেন। বান্দারা দীর্ঘ এক মাস রোজা রেখে পবিত্র রমজানে মহান আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে ইবাদত করে এবং রোজার ঈদ পালন করেন। আর তাই পরবর্তী মাস এই জিলকদ মাসটি বিশ্রাম করার জন্য বান্দাদের জন্য রেখেছেন।

জিলকদ মাসের বিশ্রামের পর জিলহজ মাস আসে। জিলহজ মাসে মহান আল্লাহতালার বিশেষ ইবাদত ও সোয়াব দিয়েছেন। আর তাই এ কারণে মহান আল্লাহ তায়ালা বান্দাদের জন্য এই জিলকদ মাস বিশ্রামের জন্য রেখেছেন। তবে যদি কেউ চায় তাহলে এ মাসেও রোজা রেখে এবাদত করতে পারবেন।

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩

আমরা মুসলিম বাংলাদেশে বসবাস করি আমাদের মাতৃভাষা বাংলা আমরা সাধারণত বাংলা ও ইংরেজি মাস অনুসরণ করে থাকি। আরবি মাস সম্পর্কে তেমন একটা ধারণা নেই আমাদের। কিন্তু মুসলিম হিসেবে আমাদেরও পবিত্র জিলকদ মাসের সম্পর্কে জ্ঞান থাকা উচিত। 

আজকের পর্বে আপনারা জেনে যাবেন জিলকদ মাসের ক্যালেন্ডার ২০২৩ ও জিলকদ মাসে কত তারিখ আজ ২০২৩। আজকে জিলকদ মাসে কত তারিখে বিষয়টি আপনাদের জানাবো। ইংরেজি মাসে অনুযায়ী মে মাসের ২১ তারিখ পহেলা জিলকদ অর্থাৎ জিলকদ মাসের ১ তারিখ।

১৪৪৪ হিজরী জিলকদ মাসের ১ তারিখে ইংরেজি ২০২৩ সাল অনুযায়ী মে মাসের ২১ তারিখ। এবং বাংলা ১৪৩০ জ্যৈষ্ঠ মাসের ৭ তারিখ। রোজ রবিবার। আরবি মাসের সব মাসগুলোই চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল। জিলকদ মাসের শেষ তারিখ হলে ১৮ জুন। আপনাদের সুবিধার্থে নিচে জিলকদ মাসের ক্যালেন্ডার দেয়া হল।

জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ - জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

আশা করি বন্ধুরা আপনারা আজকের দেখে বুঝে গেছেন জিলকদ মাসে কত তারিখ আজ জিলকদ মাস কবে শুরু হবে ২০২৩ এবং জিলকদ মাস কবে শেষ হবে।

জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

আরবি সকল মাস চাঁদ দেখার উপর নির্বাচন হওয়ার কারণে। সকল মাসের শেষে চাঁদ দেখার উপর আরবি মাস নির্ভরশীল। মহান আল্লাহতালা দীর্ঘ এক মাস রোজা রেখে আল্লাহর এবাদত করার পরে বিশ্রামের জন্য এই একটি মাস নির্ধারণ করেছেন। আপনি চাইলে ইবাদত করতে পারবে আবার নাও করতে পারবেন এতে কোন দ্বিধাদ্বন্দ নেই।

১৪৪৪ হিজরী জিলকদ মাসের ১ তারিখে ইংরেজি ২০২৩ সাল অনুযায়ী মে মাসের ২১ তারিখ। এবং বাংলা ১৪৩০ জ্যৈষ্ঠ মাসের ৭ তারিখ। রোজ রবিবার জিলকদ মাস শুরু হবে। অর্থাৎ জিলকদ মাসের ১ তারিখ।

জিলকদ মাসে তেমন কোন ইবাদত নেই আপনি চাইলে অন্যান্য মানুষের মতো এই মাসে নফল রোজা করতে পারেন। পৃথিবীতে একজন মুসলমান হিসেবে বছরব্যাপী প্রতি সপ্তাহের সোমবার ও বৃহস্পতিবার রোজা রাখা নফল ইবাদত। এই জিলকদ মাসের নফল ইবাদতের জন্য মহান আল্লাহতালা বান্দাদের বিশেষ কিছু সোয়াব দিয়েছেন। পতিত চন্দ্র মাসের ১৩-১৪ ও ১৫ তারিখে আইয়ামে নফল রোজা রয়েছে। মাসের ১, ১০, ২০, ২৯ ও ৩০ তারিখে রয়েছে নফল রোজা।

জিলকদ মাসের ফজিলত

আল্লাহ তায়ালার সর্বশ্রেষ্ঠ মাসগুলোর মধ্যে রয়েছে জিলকদ মাস, যা একটি তাৎপর্যপূর্ণ মাস। এই এক মাস পরের দুই মাস এবং এর আগের চার মাস আল্লাহ তায়ালার ইবাদত-বন্দেগীতে ব্যস্ত থাকার কারণে এই জিলকদ মাসকে বিশ্রামের মাস বলা হয়। তাই এই মাসটি আল্লাহ তাআলার আদেশে বিশ্রামের জন্য উদাহরণ করা হয়েছে। নিচের জিলকদ মাসের ফজিলত দেওয়া হল।

যারা জিলকদ মাস সম্পর্কে জানতে চান। তাদের জন্য আমাদের আজকের আর্টিকেলে এই পর্বে জিলকদ মাসের ফজিলত খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আল্লাহ তাআলা তাদের জিলকদ মাসের ফজিলত সম্পর্কে জ্ঞান দান করুন। আমিন।।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের ঘোষণা ও হিসাব অনুযায়ী আসমান ও যমীন সৃষ্টি হওয়ার দিন থেকে বারো মাস রয়েছে। এর মধ্যে চারটি সম্মানিত। এই ধারাটি সুপ্রতিষ্ঠিত। তাই তোমরা নিজের জুলুম করো না।( সূরা তওবার 36 নং আয়াত)

জিলক্বদ মাস দোয়া করার জন্য আদর্শ মাস, এবং জালিমের অত্যাচার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনার প্রার্থনা মঞ্জুর করা হবে, সৈয়দ ইবনে তাউসের মতে, যিনি এই মাসের উপকারিতা সম্পর্কে কথা বলছিলেন। ইকবাল (পৃ. 306)

তিনি আরো বলেন, উল্লিখিত মাসটি দোয়া কবুলের মাস হিসেবে পরিচিত, তাই এ সময়ের প্রতিটি মুহূর্ত বিবেচনা করা উচিত। ইকবাল (পৃ. 307)

আল্লাহ তায়ালা প্রতিটি মাস, দিন ও ঘন্টার জন্য যে করণীয় ও করণীয় নির্ধারণ করেছেন সেগুলো থেকে বিপথগামী না হয়ে পালন করা আবশ্যক। এই মাসের জন্যও একই কথা প্রযোজ্য; কিছু করণীয় এবং করণীয় আছে। আমি প্রার্থনা করি আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে তাদের আশেপাশে সতর্ক থাকার তাওফীক দান করুন। (আমিন)

সর্বশেষ কথাঃ জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ - জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩

প্রিয় পাঠক বন্ধুরা, আপনারা নিশ্চয়ই ইতিমধ্যে জিলকদ মাসের কত তারিখ আজ ২০২৩ ও জিলকদ মাস কবে থেকে শুরু ২০২৩ এ বিষয়ে বিস্তারিত সকল তথ্য সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এখন যদি আপনাকে কেউ জিজ্ঞেস করে জিলকদ মাসের আজ কত তারিখ। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

আশা করি, আজকের পোস্টটি পরে জিলকদ মাসের সকল তথ্য সম্পর্কে ধারণা নিতে পেরেছেন। এবং আপনি অনেক উপকৃত হয়েছেন। আজকের পোস্টটি পড়ে যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুর সাথে শেয়ার করবেন। তাদের জানানোর সুযোগ করে দিবেন।

এতক্ষণ আমাদের সামনে থেকে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পোস্ট পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন