পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা জেনে নিন

বাংলার মানুষের চিরচেনা পরিচিত একটি খাবার পান্তাভাত ।পান্তাভাত সংরক্ষণের পদ্ধতি পানি মধ্যে 10 থেকে 12 ঘন্টা ভিজিয়ে রাখলে তা পান্তাভাতে পরিণত হয়। যা আমাদের শরীরের জন্য উপকারী। পান্তাভাত আমরা ক্ষুধা মেটাতে খেয়ে থাকি। কিন্তু অনেকে পান্তাভাতের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানিনা। তাদের জন্য আজকের পোস্ট। আসুন জেনে নেয়া যাক, পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে।



বন্ধুরা, আপনি কি পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানতে চান। আজকের পোস্টে পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করবো বিস্তারিত জানতে শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকুন।

"পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা "উপস্থাপনা"

পান্তাভাত গ্রাম বাংলার মানুষের সকালের নাস্তা হিসেবে পরিচিত। প্রাচীনকাল কৃষকের সকালে নাস্তা হিসেবে পান্তাভাত না হলে যেন চলেই না। বাংলাদেশ নামটা আসলে মাছে ভাতে বাঙালি বাংলা নববর্ষের কথা চলে আসে। বাংলা নববর্ষে বাঙালির ঐতিহ্যের একটি বড় অংশজুড়েই পান্তাভাত-ইলিশ। বৈশাখি মেলা ও লাল পাড়ের সাদা শাড়িতে পান্তা-ইলিশ বাংলা নববর্ষের সঙ্গে অতি নিবিড়ভাবে জড়িত বাংলার মানুষ। পহেলা বৈশাখের সকালটা যেন জমেই ওঠে না পান্তাভাত ইলিশ ছাড়া। পান্তাভাত নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে খেলে উপকারিতা আছে, আবার সময় পেরিয়ে গেলে পান্তাভাত নষ্ট হয়ে যায়। পান্তাভাত খাওয়ার যেমন উপকারিতা আছে তেমনি অপকারিতা আছে। তাই আজকের পোস্টে আপনাদের পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জানাবো।

পান্তাভাত খাওয়ার ৭টি উপকারিতা

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পান্তাভাতে প্রচুর পরিমাণে ব্যাকটেরিয়া তৈরি হয়। যা আমাদের হজমে সাহায্য করে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। এমন কি পেটে থাকা আলসার নিরাময়ে সাহায্য করে। ফলে গ্যাস হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। এবং পান্তাভাত আমাদের শরীরের শক্তি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে ফলে শরীর সুস্থ থাকে।

শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পান্তাভাত এক প্রকারের ফারমেন্টেড বা গাঁজানো খাবার যা আমাদের শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। পান্তা ভাতের মধ্যে প্রচুর ব্যাকটেরিয়ার জন্ম নেয়। যা আমাদের শরীরের জন্য বেশ উপকারী। অর্থাৎপান্তাভাত আমাদের পেটের ব্যথা কমিয়ে দেয়। এবং কোষ্ঠবদ্ধতা দূর হয় ও শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখে।

ওজন কমাতে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পুষ্টিবিদরা বলেছেন যে গরম ভাতের তুলনায় পান্তা ভাত খেলে শরীরে ওজন কমাতে সাহায্য করে। ফলে মোটা হওয়ার প্রবণতা অনেক কমে যায়। যারা ওজন কমাতে চান তারা এই পান্তাভাত খেতে পারেন।

 রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পান্তাভাত খুব সহজে আমাদের হজম হয়ে যায়। পান্তাভাতে কম পরিমাণে সোডিয়াম থাকে যা আমাদের রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। এমন কি পান্তাভাত আমাদের শরীরে এলার্জি বাড়িয়ে তোলে। তাই যারা এলার্জির ও শ্বাসকষ্টে ভুগছেন তারা পান্তাভাত খাওয়া থেকে এড়িয়ে যায় ভালো।

পানিশূন্যতার চাহিদা পূরণ করে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

100 গ্রাম পান্তাভাতে 73. 91 মিলিগ্রাম আয়রন 850 মিলিগ্রাম ও ক্যালসিয়াম 850 মিলিগ্রাম থাকে। এবং আমাদের শরীরে চাহিদা অনুযায়ী ভিটামিন সি' ভিটামিন বি এর চাহিদা পূরণ করে। ফলে আমাদের শরীরে পানির ঘাটতি পূরণ করে। পান্তাভাত গরমের জন্য বেশ কার্যকরী। কারণ পান্তাভাত শর্করা সমৃদ্ধ হওয়ায়। গরম কালে আমাদের শরীরকে ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে।

ত্বকের যত্নে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পান্তা ভাত কোলাজেন তৈরি করতে সাহায্য করে। যা আমাদের শরীরের সংযোগকারী টিস্যুর মধ্যে সমন্বয় সাধন করে থাকে। ফলে আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষা করে। এছাড়া নিয়মিত পান্তাভাত খেলে আমাদের দেহের শক্তি যোগাতে সহায়তা করে। পান্তাভাত আমাদের ত্বকের ইলাস্টিসিটি বৃদ্ধি করে। ফলে ত্বক উজ্জ্বল থাকে এবং ত্বক মসৃণ করতে সাহায্য করে।

ওজন কমাতে | পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা 

পান্তা ভাতে অ্যালকোহল থাকার কারণ যারা পান্তাভাত বেশি খায় তাদের ঘুম বেশি হয়। পান্তাভাতে ক্যালরির পরিমাণ বেশি থাকে। ফলে শরীর মোটা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ফলে ওজন বৃদ্ধি পায়। যারা ওজন বাড়াতে চান তারা পান্তাভাত খেতে পারেন।

পান্তাভাত খাওয়ার অপকারিতা

পান্তাভাতে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট থাকে। যা গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ক্ষতিকর কারণ অতিরিক্ত ক্যালোরি থাকার ফলে যখন গর্ভবতী মহিলাদের ওজন কিছুটা বেশি থাকে। তাদের পান্তাভাত খাওয়া উচিত নয়। তাই বলা যেতে পারে গর্ভবতী মহিলাদের পান্তাভাত এড়িয়ে চলা উচিত।

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যাদের অল্পতে ঠান্ডা লাগে। তাদের পান্তাভাত এড়িয়ে চলা উচিত। তাছাড়া ছোট শিশু ও বয়স্ক মানুষের পান্তাভাত না খাওয়াই ভালো। এমনকি যদি কেউ অসুস্থ ব্যক্তি থাকে সেক্ষেত্রে পান্তাভাত খাওয়া থেকে তাদের জন্য পান্তাভাত এড়িয়ে চলা ভালো।

সর্বশেষ কথা

আজকের পোস্টে শেষ প্রান্তে চলে এসেছি, আজকে ভোরের আলো আইটির পক্ষ থেকে আপনাদের পান্তাভাত খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা জানানোর চেষ্টা করেছি। যারা বুঝতে পারেননি তারা অবশ্যই সম্পন্ন পোস্টে মনোযোগ দিয়ে আবার পড়েন তাহলে নিশ্চয়ই বুঝতে পারবেন। এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে শেষ পর্যন্ত থেকে পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।

Next Post Previous Post