১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস বিস্তারিত ও ডাউনলোড লিংক

অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস হলো একাধিক ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা, মতবিনিময় করা বোঝায়। অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক যোগাযোগ নিশ্চিত করা। আর বর্তমান প্রযুক্তির যুগে একাধিক মানুষ দূরবর্তী স্থানে এক রাষ্ট্র থেকে আরেক রাষ্ট্র হতে অনলাইনে ভিডিওতে মতবিনিময় করা। তাহলে বন্ধুরা, বুঝতেই তো পারছেন বর্তমান যুগে অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সের কত গুরুত্ব। আসুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক, ১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস সম্পর্কে।

১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস বিস্তারিত ও ডাউনলোড লিংক

বন্ধুরা, আজকের পোস্টে ভোরের আলো আইটির পক্ষ থেকে ১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস সম্পর্কে আলোচনা করব বিস্তারিত জানতে শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকুন।

১০টি সেরা অনলাইন ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস "উপস্থাপনা"

আপনি কি অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের জন্য ভাল অ্যাপস খুঁজছেন। তাহলে আজকের পোস্ট আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস এর মাধ্যমে আপনি অফিসে, বাসায় থেকে মিটিং অথবা পার্সোনাল চ্যাটিং করার জন্য অ্যাপসগুলো ব্যবহার করতে পারবেন। আশা করি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস শেষ পর্যন্ত পড়বেন তাহলে নিশ্চয়ই বুঝতে পারবেন।

১০টি সেরা অনলাইন ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস

জুম অ্যাপসঃ

জুম অ্যাপস হলো একটি অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস। যার মাধ্যমে খুব সহজেই অনেকগুলো ডিভাইসের মাধ্যমে একসাথে কন্টাক্ট করে ভিডিও কল করা যায়। বর্তমান সময়ে জুম অ্যাপসের প্রচলন সবচাইতে বেশি। জুম অ্যাপসের মাধ্যমে অফিশিয়াল মিটিং গ্রুপ চ্যাটিং খুব সহজেই করা হয়।

মাইক্রোসফট অ্যাপসঃ

মাইক্রোসফট অ্যাপস যোগাযোগ মাধ্যমের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য। আপনি যদি জুম অ্যাপসের বিকল্প কিছু অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস খুঁজে থাকেন। তাহলে আপনার জন্য মাইক্রোসফট অ্যাপস। এটি জুম অ্যাপসের মতো একটি ভালো অ্যাপস। মাইক্রোসফট অ্যাপসের সাহায্যে আপনি মেসেজ বা চ্যাট করতে পারবেন, অফিশিয়াল মিটিং করতে পারবেন, আপনার ফ্যামিলির সাথে কথা বলতে পারবেন। মাইক্রোসফটস  অ্যাপসের সাহায্যে আপনি আপনার ফোনের মাধ্যমে টিমস কল করতে পারবেন। মাইক্রোসফট অ্যাপসের মাধ্যমে আপনি ২৫০ জন একত্রে অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারবেন।

স্কাইপ অ্যাপসঃ

জুম অ্যাপস ও মাইক্রোসফট অ্যাপসের মতো সবচাইতে বড় ও সবার পছন্দের একটি ভালো অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস। ব্যক্তিগত অথবা অফিসের প্রয়োজনে বেশ জনপ্রিয় একটি অ্যাপস হলো স্কাইপ। অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং ও চ্যাটিং এর জন্য আপনার ফোনে এটি খুব সহজে ব্যবহার করতে পারবেন। স্কাইপ এর মাধ্যমে আপনারা একসাথে অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং সর্বোচ্চ 50 জন মিটিং করতে পারবেন।

হ্যাংঙ্গাউট মিট ঃ

জুম, মাইক্রোসফট, স্কাইপ এর মত অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং এর প্রতিদ্বন্দ্বী একটি অ্যাপস হলো হ্যাংঙ্গাউট মিট। বর্তমান অনলাইনে যুগে হ্যাংঙ্গাউট মিট কেবল জি স্যুট  ব্যবহারকারীদের এবং জি স্যুট ফর এডুকেশন প্রোগ্রাম তাদের জন্য রয়েছে। হ্যাংঙ্গাউট মিট এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল কোন অ্যাকাউন্ট না করে আপনি ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারবেন।

জিতসি মিটঃ

জিতসি মিট হল ওপেন সোর্স অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং এর যোগাযোগের প্ল্যাটফর্ম। এখানে আপনি যত ব্যবহারকারী ততো ফ্রি কল হোস্ট করতে পারবেন। জিতসি মিট ভার্চুয়াল অফিস এবং ওপেন সোর্স প্রকল্প গুলির মত জিতসির পণ্যগুলি ব্যবহার করতে পারবেন। এই অ্যাপসটি সবচেয়ে বড় সুবিধা হল এর কোন অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন হয় না।

সিস্ক ওয়েবএক্সঃ

জুম ও মাইক্রোসফট অ্যাপসের এর মত সেরা একটি অ্যাপস হলো সিস্ক ওয়েবএক্স। সিস্ক ওয়েবএক্স ফিচার যুক্ত বেশিরভাগ কর্পোরেশন যুক্ত বৃহৎ প্রতিষ্ঠানে সেবা প্রদানে ব্যবহার করা হয়। সিস্ক ওয়েবএক্স অংশ গ্রহণকারী একসাথে ১০০ জনে অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারবেন। এই মিটিং এর জন্য কোন একাউন্ট এর প্রয়োজন হয় না। আপনি এইচডি, স্কিন ভাগ করে, পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত ব্যক্তিগত চ্যাট করতে পারবেন।

বুলু জিন্সঃ  

সবচাইতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স বুলু জিন্স অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস। এটি জুম অ্যাপস এর মতো স্মার্ট ফিচার দেয়। বুলু জিন্স এর মাধ্যমে আপনি চ্যাটিং, মিটিং, অফিশিয়াল কাজ করতে পারবেন। বুলু জিন্স যে কোন ডিভাইসের মাধ্যমে আপনি অনলাইনে অডিও ও ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারবেন।

জোহা মিটিংঃ

জোহা মিটিং অ্যাপস অফিসের মিটিং এর জন্য অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং সবচাইতে বেশি জনপ্রিয়। অফিসের অ্যাকাউন্ট পরিচালনা ওয়ার্ড প্রসেসিং এছাড়াও ওয়েব কনফারেন্সিংয়ের সেরা একটি ফিচার তৈরি করতে চলেছে। জোহা মিটিং এর মাধ্যমে সহজেই আপনি ডকুমেন্ট তৈরি করতে পারবেন। মিটিংয়ের সিডিউল করতে পারবেন, অংশগ্রহণকারীকে আমন্ত্রণ করতে পারবেন। জোহা মিটিং সম্পন্ন ওয়েবভিত্তিক।

গো টু মিটিংঃ

গো টু মিটিং অনেক আগে থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে। এর মাধ্যমে আপনার অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং, চ্যাটিং, ছাড়াও আপনি যদি কোন ছোট প্রতিষ্ঠানের মালিক হয়ে থাকেন। গো টু মিটিং আপনাকে ব্যবহারে অনুমতি দিয়ে থাকে। গো টু মিটিং এর সাহায্যে যে কোন জায়গা থেকে অনলাইনে অডিও ভিডিও মিটিং হোস্টিং করতে পারবেন। গো টু মিটিং সবচেয়ে ইন্টারেস্টিং ব্যাপার হল ২৫০ থেকে ১০০০ জন ব্যক্তি অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং মিটিং এর পারমিশন পেয়ে থাকবেন।

ফেসবুক মেসেঞ্জার রুমসঃ 

বর্তমানে ফেসবুক মেসেঞ্জারে রুমস অ্যাপস ব্যবহার করে একসঙ্গে ৫০ জন ব্যক্তি অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্স যুক্ত করতে পারবেন। ফেসবুক মেসেঞ্জারে রুম অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং করার জন্য কোন একাউন্টের প্রয়োজন হয় না ফেসবুক একাউন্ট ছাড়াই মেসেঞ্জার রুমস ব্যবহার করা যায়। অ্যাপস ডাউনলোড প্রয়োজন নেই, আমন্ত্রণের সঙ্গে পাঠানো লিংকে ক্লিক করে যে কোন ব্যক্তি এই অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সে যোগাযোগ করতে পারবেন।

সর্বশেষ কথা - ১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস বিস্তারিত ও ডাউনলোড লিংক

প্রিয় বন্ধুরা, নিশ্চয়ই আপনাদের ১০টি সেরা অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপস সম্পর্কে জানাতে পেরেছি। আশা করি উপকৃত হবেন। এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থেকে শেষ পর্যন্ত পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন।

Next Post Previous Post