কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন

কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন - পাঠক, আপনি কি কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন এই নিয়ে ভাবছেন? তাহলে আপনার জন্য আমাদের আজকের এই পোস্ট। আজকের পোস্টে আমি আপনাদের কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন সে সম্পর্কে জানাবো। 

কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন

বর্তমান বিশ্বের গুগল একটি বড় কোম্পানি। গুগল ড্রাইভ প্রিমিয়ার ক্লাউড স্টোরেজ প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি। মৌলিক সাইবার লকার প্লাটফর্মের চেয়ে অনেক বেশি গুগল ডক স্যুটের ক্লাউড ভিত্তিক সফটওয়্যার যা ওয়ার্ড প্রসেসর অন্তর্ভুক্ত করে থাকে। আপনি যখন আপনার ব্রাউজারে ওয়েব গুগল ড্রাইভ এক্সেস করতে পারবেন তা হল সার্চ জয়েন ডেক্সটপ বা ল্যাপটপ উইন্ডোজ।

গুগল ড্রাইভে প্রিমিয়ার ক্লাউড স্টোরেজ প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে অন্যতম মৌলিক সাইবার কার প্ল্যাটফর্মের চেয়ে অনেক বেশি। গুগল ডক স্যুটের ক্লাউড ভিত্তিক সফটওয়্যার ও ওয়ার্ডপ্রসেসর অন্তর্ভুক্ত করে। আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাব এটি লিখে গুগলে সার্চ করেন। তাদের সুবিধার্থে নিচে কিভাবে উইন্ডোজ ড্রাইভে একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো।

যারা আজকের পোস্টটি পড়ছেন তারা নিশ্চয়ই কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন এ নিয়ে দুশ্চিন্তাই রয়েছেন। আমাদের আজকের এই পোস্ট আপনি যদি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়েন। তাহলে অবশ্যই আপনি গুগল ড্রাইভে এ উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাতে পারবেন।

কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন 

সাধারণত একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এদের সাথে স্মার্টফোনের মাধ্যমে একাধিক গুগল ড্রাইভ একাউন্ট চালানোর নানা সুবিধা রয়েছে। আমরা "Insync" নামের থার্ড পার্টি google drive ক্লায়েন্ট ব্যবহার করে তা উইন্ডোজ ম্যাক অপারেটিং সিস্টেম এবং লিনাক্স। গুগল ড্রাইভ উইন্ডোজের সাথে কানেক্ট করার জন্য প্রথমে এই লিংকে যেতে হবে এবং ডাউনলোড করতে হবে। যখন ব্রাউজারে মাধ্যমে ওয়েব গুগল ড্রাইভ এক্সেস করতে পারবেন সার্চ জয়েন টেক্সটপ বা ল্যাপটপ উইন্ডোজ, ম্যাথ অপারেটিং সিস্টেম, এন্ড্রয়েড এবং আইওএস প্রতিটি বড় প্ল্যাটফর্ম। অ্যাকাউন্টের সাথে কাজ করে মোটামুটি সহজ google কিছু কারণে এখনো উইন্ডোজ অ্যাপ্লিকেশন এনাবল করতে পারেনি।

থেকে ইন্সটল করার সময় অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন চেক করে নেবেন। ইন্সটল করার শেষ হওয়ার পরে একটি উইন্ডো আসবে। সেখানে আপনি Get Started লিংক করবেন। তারপর আপনি এখানে এক বা একাধিক জিমেইল এড্রেস দিয়ে লগইন করতে পারবেন।

তারপর আপনার জিমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিলে গুগল ড্রাইভ আপনার পিসি বা ল্যাপটপ কিংবা স্মার্টফোনে এক্সেস করতে পারবেন। সেখানে আপনি এই লেখাটি দেখতে পাবেন।


আপনি যদি গুগল ড্রাইভে ক্রমাগত ব্যাকআপ করতে চান তাহলে আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন থেকে ফোল্ডারগুলি সিলেক্ট করতে হবে। অতঃপর drive.com গিয়ে যেকোনো ব্রাউজের ট্যাব ওপেন করলে আপনি এমনটি দেখতে পাবেন।
  • ডেস্কটপ
  • ডকুমেন্ট
  •  ছবি
এখানে আপনি ডিফল্টভাবে সেটিং দেখতে পাবেন। আপনি চাইলে আপনার মন পছন্দ মতো কাস্টমাইজ করে নিতে পারবেন। এরপরে প্রথমে আপনার ল্যাপটপ বা কম্পিউটার বা স্মার্টফোনের সেভ করা ফাইল কিংবা ফোল্ডার সিলেক্ট করে গুগল ড্রাইভে নিশ্চিত ও নিরাপদে রাখতে পারবেন।

কিভাবে গুগল ড্রাইভে ফাইল নির্বাচন করবেন

কিভাবে গুগল ড্রাইভে ফাইল নির্বাচন করবেনঃ আপনি যদি গুগল ড্রাইভে ফাইল নির্বাচন করতে চান তাহলে এখান থেকে অনায়াসে ফাইল নির্বাচন করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা নিচে দেওয়া হল।

 তারপর সেখানে আপনি এরকম ছবি দেখতে পাবেন।এরপর অপশন নির্বাচন লিংক করলে পাবেন। সেখানে আপনার পছন্দসই ফাইল টাইপ করুন।

এখান থেকে সমস্ত ফাইল ও ফোল্ডার ব্যাক আপ করুন। ফটো ও ভিডিও ব্যাকআপ করুন।

গুগল ড্রাইভে অ্যাডভান্স সেটিং

Google ড্রাইভে অ্যাডভান্স সেটিংঃ তারপরে এখানে এই অপশনটি সিলেক্ট করলে আপনি আরও একটি অপশন লেখা দেখতে পাবেন অর্থাৎ আপনি বক্সের ভিতরে যে ধরনের ছবি বা ফাইল চাচ্ছেন না। সেই ফাইলের ছবি বা ডকমেন্ট আপলোড হবে না।


এরপরে যদি আপনি সিলেক্ট করা ডকুমেন্ট কাস্টমাইজ করে নিতে পারবেন। তারপরে Next বাটনে চাপ দেবেন। এরপর একটি অপশন দেখাবে সিনকোনাইস হয়ে আপনার ল্যাপটপ বা কম্পিউটার কিম্বা স্মার্টফোনে ফোল্ডার ডকুমেন্ট ছবি যেকোনো ধরনের ফাইল লোকেশন অনুযায়ী আপনি চাইলে ফোল্ডার ডকুমেন্ট ছবি যে কোন ধরনের ফাইল লোকেশন অনুযায়ী আপনি যেভাবে চাইবেন সেভাবে সিলেক্ট করে রাখতে পারবেন। এর জন্য আপনি দুটি অপশন খেয়াল করতে পারবেন। নিচের ছবিটি দেখলে বুঝতে পারবেন।


ড্রাইভে যদি আপনি অটো সিস্টেম করে রাখেন। তাহলে এখান থেকে সমস্ত ফাইলগুলো অটোমেটিক সিনকোনাইস হয়ে যাবে।
আপনি সিলেক্ট করতে চাইলে সেগুলা পছন্দসই ফাইল সিনকোনাইস হয়ে যাবে। এখান থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী ছবি, ডকুমেন্ট ও ভিডিও আপনার পছন্দমত সেটআপ বা সিলেক্ট করতে পারেন।

গুগল ড্রাইভে আপলোড করার নিয়ম কানুন

গুগল ড্রাইভে আপলোড করার নিয়ম কানুনঃ Google drive যেহেতু ক্লাউড স্টোরের সেবা সুতরাং আপনি এখানে ফাইল আপলোড করতে পারবেন। আপনি এখান থেকে আপনার প্রয়োজনই ৪ ধরনের ফাইল আপলোড করতে পারবেন। যেমনঃ
  • ডকুমেন্ট-pdf, docx, epub, doc
  • ইমেজ-jpg, jpeg, png, gif
  • ভিডিও-mp4, mpg, avi, mov
  • অডিও-mp3, amr, wav
সাধারনতো ৪ উপায়ে ফাইল ব্যবহার করে থাকি। এই ফাইল আপনার অ্যাকাউন্টে আপলোড করতে পারবেন। আপনি চাইলে অন্য ব্যক্তিকে এক্সেস দিতে পারবেন। এবং অন্যরাও ফাইল আপলোড করতে পারবে। মূলত দুটি উপায়ে ফাইল আপলোড বা ফোল্ডার আপলোড করতে পারবেন। যেমনঃ সরাসরি সফটওয়্যারের মাধ্যমে, সফটওয়্যার এর মাধ্যমে।

যেভাবে সফটওয়্যারের মাধ্যমে ফাইল বা ফোল্ডার আপলো ড করবেন সেই উপায় তিনটি জানানো হলো। এ ছাড়াও এই উপায় অবলম্বন করলে আপনি ফ্রিতে ১৫ জিবি আপলোড স্পেস পাবেন।
  • কম্পিউটারের সফটওয়্যার এর মাধ্যমে
  • এন্ড্রয়েড ফোনের অ্যাপস এর মাধ্যমে
  • আইওএস তথা আইফোন অ্যাপস এর মাধ্যমে
কম্পিউটার সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আপলোডঃআপনি যদি সরাসরি ব্রাউজারে মাধ্যমে ফাইল বা ফোল্ডার আপলোডে নিয়মকানুন ঠিক একই ভাবে সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ফাইল বা ফোল্ডার আপলোড করতে পারবেন। এছাড়া গুগল ড্রাইভ সফটওয়্যারটি ডাউনলোডিং লিংক থেকে যেকোনো সময় ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

Android ও আই-ফোনের অ্যাপস এর মাধ্যমে আপলোডঃ আপনি চাইলে খুব সহজে আপনার অ্যান্ড্রয়েড বা iphone এর মাধ্যমে সরাসরি বাজারের প্লে স্টোর থেকে google ড্রাইভ অ্যাপ এবং iphone এর ক্ষেত্রে অ্যাপ স্টোর থেকে গুগল ড্রাইভ অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করে নিতে পারবেন। ইন্সটল করার কাজ শেষ হয়ে গেলে অবশ্যই জিমেইল তথা google একাউন্ট লগইন করে নিতে হবে। লগইন করা শেষে গুগল ড্রাইভে প্রবেশ করুন। এবার নিচে ডান পাশে + চিহ্নযুক্ত বাটনে ক্লিক করুন।

ব্যক্তিগত ডাটা গুগল ড্রাইভে নিরাপদ কিনা

ব্যক্তিগত ডাটা গুগল ড্রাইভে নিরাপদ কিনাঃ আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা এ প্রশ্ন করে থাকেন ব্যক্তিগত ডাটা গুগুল ড্রাইভে নিরাপদ কিনা। সম্পন্ন সিকিউরিটি প্রদান করে এবং কোন ধরনের ডাটা হারানোর ভয় বলতে একেবারে নেই। সিকিউরিটির দিক থেকে গুগল নাম্বার ওয়ান পজিশনে রয়েছে। ইমেইল এড্রেস এবং শক্ত পাসওয়ার্ড এর মাধ্যমে আপনার ডাটা আপনার বেশি নিরাপদ করতে পারবেন। আপনি চাইলে তুই স্টেপ ভেরিফিকেশন সমন্বয়ে গুগল বা gmail অ্যাকাউন্ট আরো বেশি সুরক্ষিত রাখতে পারবেন। জিমেইল বা google একাউন্টের অন্য কেউ পাসওয়ার্ড জানলে কেউ একাধিক এক্সেস নিতে পারবে না।

সর্বশেষ কথাঃ কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোস একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন

প্রিয় পাঠক, আপনারা যারা জানতে চেয়েছিলেন কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন। আপনাদের এই প্রশ্নের উত্তর আমরা উপরে পোস্টে সম্পন্ন জানিয়েছি। আপনাদের জন্য আজকে গুগল ড্রাইভে ফাইল ও ফোল্ডার আপলোডের সহজ নিয়ম জানানো হয়েছে। গুগল ড্রাইভ এপ্লিকেশন গুগল ড্রাইভে জনপ্রিয়তা বর্তমানে অনেক বেশি জনপ্রিয়তা ও প্রেক্ষাপটে সবার চাইতে অনেক বেশি এগিয়ে রয়েছে।

আশা করি, আমাদের আজকের এই পোস্ট কিভাবে গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাবেন সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ে ও নিয়ম মেনে। আপনি গুগল ড্রাইভে উইন্ডোজ একাধিক অ্যাকাউন্ট চালাতে পারবেন। আজকের এই পোস্টটি পড়ে আপনার যদি ভাল লেগে থাকে। তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থেকে শেষ পর্যন্ত পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন।
Next Post Previous Post