নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার - প্রিয় পাঠক, আসসালামু আলাইকুম। আপনি কি নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার নিয়ে ভাবছেন? তাহলে আজকে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের পোস্টে আমি আপনাদের জন্য নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার নিয়ে আজকের বিষয়টি সাজিয়েছি। নাক দিয়ে রক্ত পড়া খুবই স্বাভাবিক একটি সমস্যা। যাদের বয়স ১৯ থেকে ২০ বছর হয়েছে এবং জীবনে কখনো নাক দিয়ে রক্ত পড়েনি এরকম লোকের সংখ্যা খুবই কম পাওয়া যাবে। গবেষণায় দেখা গেছে, যে ২০ বছরের মধ্যে প্রায় ৬০% মানুষের কোন না কোন ভাবে নাক দিয়ে রক্ত পড়েছে। এই বিষয় সম্পর্কে অনেকেই অজ্ঞাত রয়েছেন। তাই তারা নাক দিয়ে রক্ত পড়া নিয়ে অনেক ভয় পান। তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জেনে নিন।

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার

চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায়, নাকের অবস্থান এবং আপনার অভ্যন্তরীণ রক্তনালী গুলোর কাছাকাছি অবস্থানের কারণে সহজেই নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে। আর এই রক্ত পড়াকে বলা হয় এপিস্ট্যাক্সিস। বেশিরভাগ মানুষেরই নাক দিয়ে রক্ত পড়া ঘরোয়া ভাবে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। তবে এই সমস্যাটি বেশি দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কেননা অনেক সময় নাক দিয়ে রক্ত পড়া জটিল রোগের উপসর্গ হিসেবে দেখা দিতে পারে। আর তাই আজকে আপনাদের সুবিধার্থে আমাদের আজকের এই পোস্টে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।

নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি - নাক দিয়ে রক্ত পড়লে কি বলে

নাক দিয়ে রক্ত পড়া কিঃ প্রত্যেকটা মানুষ তার নাক দিয়ে ঘ্রাণ নিতে পছন্দ করেন। কেননা এই নাক দিয়ে আমাদের ঘ্রাণশক্তি কাজে লাগিয়ে কোন জিনিসের ঘ্রাণ নিতে ব্যবহার করা হয়। যারা নাক দিয়ে রক্ত পড়া নিয়ে বিভ্রান্তির মধ্যে রয়েছেন। তারা অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি? তাদের সুবিধার্থে নিচে নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি সম্পর্কে জানানো হলো।

সহজ কথায় নাক দিয়ে রক্ত পড়া হলো নাকের ভেতরের টিস্যু থেকে রক্তের ক্ষয়। সাধারণত আমাদের মুখের মাঝখানে নাকের অবস্থান। আর তাই নাকের আস্তরণ পৃষ্ঠের কাছাকাছি প্রচুর পরিমাণে রক্তনালী থাকে। সামান্য পরিমাণ আঘাত পেলে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে থাকে। 

নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি গুরুতর

নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি গুরুতরঃ যদি আপনার নাক দিয়ে রক্ত পড়ে থাকে। এবং এ রক্ত পড়া নিয়ে আপনি যদি চিন্তিত হয়ে থাকেন। আপনি চাইলে নাক দিয়ে রক্ত পড়া চিকিৎসা খুব সহজেই ঘরে বসে থেকে রক্ত পড়া বন্ধ করতে পারবেন। তবে কিছু কিছু লক্ষণ আছে যেগুলোর ক্ষেত্রে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তবে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার যদি নিয়মিত হতে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের কাছে গিয়ে পরীক্ষা করানো উচিত। কারণ আপনার শরীরে যদি অন্য কোন সমস্যা থেকে থাকে তাহলে সেই রোগের সমস্যার লক্ষণটি এই নাক দিয়ে রক্ত পড়ার মাধ্যমে দেখা দিতে পারে।

এই নাক দিয়ে সাধারণত বড় রক্তনালীর সাথে জড়িত থাকে যার ফলে প্রচুর রক্তপাত হয়। যা আপনার জন্য অনেক বিপদজনক হতে পারে। এ ধরনের রক্তপাতের জন্য অবশ্যই আপনার চিকিৎসার সাথে পরামর্শ করতে হবে। যেমনঃ বিশেষ করে আঘাতের পর যদি আপনারা নাক ২০ মিনিট চাপ দিয়ে ধরে রাখার পর রক্ত পড়া বন্ধ না হয়।

নাক দিয়ে রক্ত পড়া রোগের নাম কি

নাক দিয়ে রক্ত পড়া রোগের নাম কিঃ আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা নাক দিয়ে রক্ত পড়ার সমস্যায় ভুগে থাকেন। কিন্তু নাক দিয়ে রক্ত পড়া সমস্যা রোগের নাম কি তা জানেন না। আমাদের আজকের এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ছেন তারা নিশ্চয়ই রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। এছাড়াও যারা জানতে চেয়েছেন নাক দিয়ে রক্ত পড়া রোগের নাম কি তাদের সুবিধার্থে নিচে জানানো হলো।

রক্তের বিভিন্ন রোগের কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে। এর মধ্যে এমন কিছু নাকের রোগ রয়েছে সেই রোগগুলো হলঃ অ্যানেমিয়া, হিমোফিলিয়া, থ্রম্বোসাইটোপেনিয়া ইত্যাদি সকল রোগ দেখা দিলে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে থাকে।

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ - নাক দিয়ে রক্ত পড়ার অন্যান্য কারণ সমূহ - হঠাৎ নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার অন্যান্য কারণ সমূহঃ প্রথম প্রথম নাক দিয়ে রক্ত পড়ে একটি সাধারণ সমস্যা আপনার কাছে মনে হলেও নাক দিয়ে রক্ত পড়া অনেক জটিল সমস্যা ধারণ করতে পারে। আবার অনেকেই আছেন যারা নাক দিয়ে রক্ত পড়া শুরু করলে অসুখের লক্ষণ মনে করে থাকেন। তাই আমাদের নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে জানা জরুরী। তাই আজকে আর্টিকেলে আপনাদের সুবিধার্থে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে আপনাদের সামনে বিস্তারিত সকল তথ্য নিয়ে এ পর্বটি সাজিয়েছি।

নাক দিয়ে রক্ত পড়া একটি সমস্যা যা আমাদের বিভিন্ন কারণে হতে পারে। মহিলা এবং পুরুষের ক্ষেত্রে নাক দিয়ে রক্ত পড়া প্রায় একই রকম দেখা যায়। শুধু আমাদের নাকের সমস্যার কারণে যে নাক দিয়ে রক্ত পড়বে এমনটা নয়। আমাদের শরীরের বিভিন্ন অংশে রোগ বা অসুখের কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পরে। পাঠক বন্ধু, আপনাদের সুবিধার্থে নিচে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার অন্যান্য কারণ সমূহ সম্পর্কে জানানো হলো।

  • আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যারা বৃদ্ধ বয়স বেশি। তাদের বয়সের কারনে রক্তনালী সংকোচন ও প্রসারণশীলতা কমে যাওয়ার ফলে নাক দিয়ে রক্ত বের হতে পারে।
  • নেশা জাতীয় কোন কিছু নাক দিয়ে গ্রহণ করলে। আপনার নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • স্বাভাবিকভাবে নাক দিয়ে রক্তপাত হতে পারে। যদি আপনি রক্ত জমাট বাঁধা দূর করতে ওষুধ সেবন করে থাকেন।
  • আমাদের নাকের অনেক সময় ঝিল্লি শুকিয়ে গেলে, ফেটে গেলে বা সেখানে শক্ত আবরণ সৃষ্টি হলে নাক দিয়ে রক্ত বের হতে পারে।
  • বংশগত কারণে যদি আপনার পরিবার কার রক্ত জনিত সমস্যা থেকে থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনারাও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার এই সমস্যা হতে পারে।
  • নাকের সংক্রমণ বা সাইনাসের সংক্রমণ বা নাকের বিভিন্ন টিউমার, ইনফেকশন, ট্রমা, অ্যালার্জিক রাইনাইটিস, নন-অ্যালার্জিক রাইনাইটিস, উচ্চ রক্তচাপ, এছাড়াও আপনি যদি মাদক সেবন করেন তাহলে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • বেশিরভাগ সময় দেখা গেছে শীতকালে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার সমস্যাটি বেড়ে যায়। কারণ শীতকালে অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • অতিরিক্ত ঠান্ডায় নাকে সর্দি জমে। যার ফলে আমরা একটু অসতর্কতার কারণে নাক দিয়ে রক্ত বের হয়।
  • আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যাদের অ্যালার্জি রয়েছে। তাদের এলার্জির কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়া দেখা দিতে পারে। এজন্য যে সমস্যার কারণে এলার্জি হয় সে সমস্যা থেকে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।
  • সাধারণত যে সকল অভ্যাস গুলো আপনার শরীরে এলার্জি বাড়িয়ে দিতে সক্ষম। সেই অভ্যাসগুলো এড়িয়ে চলা উচিত। তা না হলে আপনার এলার্জির কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • আপনার শরীরে যদি কোথাও অস্বাভাবিকভাবে ট্রিমার জাতীয় কিছু বৃদ্ধি হতে থাকে। তখন আপনার নাক দিয়ে রক্ত পড়া দেখাতে পারে।
  • নাকে যদি হাতের আঘাত বা ভেতরে ঝিল্লি ফেটে যায় তাহলে নাক দিয়ে রক্ত ঝরতে পারে।

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কতিপয় সাধারণ কারণ

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কতিপয় সাধারণ কারণঃ স্বাভাবিক কিছু অবস্থায় আমাদের নাক দিয়ে রক্ত বের হতে পারে। যারা নাক দিয়ে রক্ত পড়ার প্রতি সাধারণ কারণ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। তাদেরকে নিচে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কতিপয় সাধারন কারণ দেওয়া হলো।
  • রক্তনালীতে জন্মগত কোন ত্রুটি থাকলে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • আপনার যদি উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যা থাকে তাহলে আপনার নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • মহিলাদের ক্ষেত্রে মাসিক ও গর্ভাবস্থায় অনেকেরই নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • জন্ডিস ও লিভারের প্রদাহ জনিত সমস্যা থাকলে যেমন লিভারের সিরোসিসের মতো লিভারের অসুখ থাকলে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।
  • এছাড়া আমরা নাকের প্রদাহ কামানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ওষুধ সেবন করে থাকি যার ফলে নাক দিয়ে রক্ত বের হতে পারে।

নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায়

নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায়ঃ আপনারা যারা নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায় সম্পর্কে জানতে চান। তাদের জন্য আমাদের আজকের আর্টিকেল নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পন্ন পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়লে নাক দিয়ে রক্ত বন্ধ করার উপায় সম্পর্কে জানতে পারবেন। নাক আমাদের শরীরে একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যার মাধ্যমে আমরা ঘ্রাণশক্তি নিতে পারি। তাই নাকের যত্ন আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। তাহলে চলুন কথা না বাড়িয়ে নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায় জেনে নিন।

যদি আপনি কখনো নাক দিয়ে রক্ত পড়ে থাকে। প্রথমে আপনার বৃদ্ধা আঙ্গুলও স্বাগত আঙ্গুল দিয়ে আপনাকে ছিদ্র জোরে বন্ধ করবেন। চেষ্টা করবেন মুখ দিয়ে শ্বাস নেবার জন্য। এরপর তৎক্ষণিক আপনি আপনার সামনে থাকার কোন টুল বা চেয়ারে বসে পড়বেন। এভাবে দশ মিনিট বসে থেকে নাক ধরে রাখুন। কিছুক্ষণ পর কপাল ও নাকের চারপাশে ঠান্ডা বরফ ব্যবহার করুন। 

এরপরে আপনার রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যাবে। আর যদি পুরনো ২০ মিনিটের বেশি ধরে রক্ত পড়তে থাকে তবে দেরি না করে পাশের যে কোন হাসপাতালে নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। যদি আপনার আঘাতে কোন কারনে রক্ত বের হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই নাকের হাড় ভেঙেছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিবেন।

সতর্কতাঃ যদি আপনার কখনো নাক দিয়ে রক্ত পড়ে তাহলে কখনোই শুয়ে পড়বেন না। এতে আপনার রক্ত ফুসফুসে গিয়ে জটিল সমস্যা করতে পারে। নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত নাকে হাত স্পর্শ বা কোন কিছু দিয়ে পরিষ্কার করতে যাবেন না। সামনে বুকে মাথা হৃদপিণ্ড নিয়ে এসে লেভেলে আনবেন না কারণ এতে আপনার রক্ত পড়া শুরু হতে পারে।

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার প্রাথমিক চিকিৎসা -নাক দিয়ে রক্ত পড়ার চিকিৎসা

নাক দিয়ে রক্ত পড়ার প্রাথমিক চিকিৎসা ও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার চিকিৎসাঃ পাঠক বন্ধু, আজকের পোস্টে আপনাদের জন্য একটি বিশেষ আলোচনা করতে চলেছি যা হলো আপনার শরীরের বিশেষ একটি অংশ। নাক আমাদের শরীরে ঘ্রাণশক্তি নেবার জন্য বিশেষ একটি অংশ হিসেবে কাজ করে থাকে। নাক দিয়ে রক্ত পড়া সমস্যাটি আমরা অনেক সময় ভোগে থাকি। ইতিমধ্যে আমরা নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জেনেছি। এখন আমরা জানবো নাক দিয়ে রক্ত পড়া প্রাথমিক চিকিৎসা ও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার চিকিৎসা সম্পর্কে।
  • প্রথমত নাক দিয়ে রক্ত পড়া দেখা দিলে দ্রুত নাট চেপে ধরতে হবে। অতঃপর এটি যদি রক্ত পড়া বন্ধ না হয় তাহলে বরফ দিয়ে কিছুক্ষণ চেপে রাখুন।
  • নাক দিয়ে রক্ত পড়লে অবশ্যই রোগীকে যত দ্রুত সম্ভব হসপিটাল নেওয়ার চেষ্টা করুন।
  • রোগীর হার্টবিট কতটা চেতনায় আছে তা বোঝার চেষ্টা করবেন।
  • রবির অ্যালুমিনিয়া পরীক্ষা করতে হবে। নাকের রক্ত পড়া বন্ধের জন্য অবশ্যই সাথে সাথে এন্টিবায়োটিক দিতে হবে।
  • শান্ত রাখার জন্য অল্প পরিমাণ ঘুমের দোষ ঔষধ দিতে হবে। যদি তাতে রক্ত পড়া বন্ধ না হয় তাহলে রইবে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যেতে হবে। সম্পূর্ণ অজ্ঞান করে রক্তনালী দিয়ে রক্ত পড়েছে তা বন্ধ করে দিতে হবে।
  • রোগীর শরীর রক্তের পরিমাণ বৃদ্ধি করার জন্য স্যালাইন ও রক্ত দিতে হবে। এতেও যদি রক্ত পড়া বন্ধ না হয় তাহলে নাকের ভেতরে গজ দিয়ে ন্যাজাল প্যাক (nasal pack) (গজের ভেতর ওষুধ দিয়ে নাকের ভেতর রাখা) দিতে হবে। শক (shock) এর লক্ষণ থাকলে সে অনুযায়ী চিকিৎসা করতে হবে।

সর্বশেষ কথাঃ নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার

প্রিয়া পাঠক বন্ধু, যারা আজকের এই নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সরকারে পড়েছেন। তারা নিশ্চয়ই নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এছাড়াও নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি, নাক দিয়ে রক্ত পড়া কি গুরুতর, নাক দিয়ে রক্ত পড়া রোগের নাম কি, নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ - নাক দিয়ে রক্ত পড়ার অন্যান্য কারণ সমূহ, নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কতিপয় সাধারণ কারণ, নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায়, নাক দিয়ে রক্ত পড়ার প্রাথমিক চিকিৎসা ও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার চিকিৎসা সম্পর্কে জানিয়েছি।

আশা করি, আজকের এই পোস্টটি পড়ে আপনার যদি কখনো কারো নাক দিয়ে রক্ত পড়া দেখতে পান অবশ্যই তার সঠিক পরামর্শ দিতে পারবেন। আজকের এই পোস্টটি পড়ে যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে। তাহলে অবশ্যই আপনাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। তাদেরকে জানিয়ে দিবেন না দিয়ে রক্ত পড়ার কারণে প্রতিকার সম্পর্কে।

এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থেকে শেষ পর্যন্ত পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন।
Next Post Previous Post