মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় ২০২৪

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় ২০২৪ - আপনি কি গুগলে মোবাইলে ব্যাটারির ভালো রাখার উপায় লিখে সার্চ করে আমাদের ওয়েব সাইটে এসেছেন। আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের আর্টিকেলে মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় ২০২৪ নিয়ে সাজিয়েছে। বর্তমান যুগ ডিজিটাল যুগ এ যুগে মোবাইল ফোনের ব্যবহারের বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা ফোন চালানো অবস্থায় লক্ষ করে থাকি আমাদের ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ দিন দিন কমে যাচ্ছে। সাধারণত মোবাইল ফোনে ব্যাটারির জানিতে সমস্যার কারণে স্মার্টফোনে চার্জ কম থাকে। এ সকল সমস্যার সমাধানে আমরা আজকে মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় ২০২৪ নিয়ে আলোচনা করব।

কোন কোম্পানির চার্জার ভালো - মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় -২০২৩
চলুন শুরু করা যাক, মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় নিয়ে। নিচে কোন মোবাইলে ব্যাটারি ভালো, কোন কোম্পানি ব্যাটারি ভাল, কোন কোম্পানি চার্জার ভালো এছাড়া মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার ১৩টি উপায় তুলে ধরা হলো। আশা করি সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়

বর্তমান ইলেকট্রনিক্স এর যুগে মোবাইল ফোনের ব্যবহারের চাহিদা অনেক বেশি। আমাদের মধ্যে ৯৯% মানুষের মোবাইল ব্যবহার করে। অনেক মানুষ শখ করে লাখ টাকার মোবাইলে আবার ব্যবহার করে থাকে। তবে একটি বিষয় নিয়ে সবাই, আর সেটি হল মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ নিয়ে। কারণ মোবাইলের ব্যাটারি যত ভালো থাকবে মোবাইল ব্যবহারের তত বেশি মজা পাওয়া যাবে।

আমরা যখন নতুন মোবাইল ক্রয় করি। তখন প্রথম প্রথম মোবাইলের ব্যাটারি ভালো থাকে পরবর্তীতে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা ধীরে ধীরে হ্রাস পায়। মূলত আমাদের মোবাইল সঠিকভাবে ব্যবহার না করার কারণে মোবাইলের বেশি দিন ব্যাটারি ভালো থাকে না। নিচে মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার ১৩টি উপায় জানানো হলো।

কোন মোবাইলের ব্যাটারি ভালো

সারা বিশ্বের বিভিন্ন মডেলের মোবাইল ফোন তৈরি করা হয়েছে। বিভিন্ন মডেলের মোবাইলে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ব্যাটারি পাওয়ার ক্ষমতা। বর্তমানে কম বেশি সকল স্মার্টফোনে 5000mh -6000mh ব্যাটারি দেয়া থাকে। সেজন্য টার্গেট করা ব্যান্ডের কোন প্রয়োজন নেই। অনেক বেশি মোবাইলে ব্যাটারি দেওয়া আছে এবং অনেকক্ষণ সার্ভিস দেয় এমন ফোনের মধ্যে স্যামসাং মোবাইলে আছে samsung মোবাইলে ব্যাটারি পাওয়ার 6000mh & 7000mh মেগা পর্যন্ত। আবার শাওমি মডেলের মোবাইল ফোন সহ Oppo Phone, Real me phone , Tecno Phone,  huawei Phone এদের প্রাই 5000mh+ ব্যাটারি ক্ষমতা দেয়া থাকে।
কোন কোম্পানির চার্জার ভালো - মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় -২০২৩

কোন কোম্পানির ব্যাটারি ভালো

বন্ধুরা, আপনারা প্রশ্ন করেছেন কোন কোম্পানির ব্যাটারি ভালো। বিশ্বের বিভিন্ন ব্যান্ডের ফোনের কোম্পানি রয়েছে কিন্তু সচারচর ব্যাটারি নষ্ট হয়ে গেলে অন্য ব্যাটারি সাপোর্ট নিতে হয়। এর মধ্যে কিছু উন্নত মানের ব্যাটারির ব্যান্ডগুলো দেওয়া হল। যে সকল কোম্পানির ব্যাটারি সাহায্য নিয়ে থাকি তা হল একটিভ, অনিক, হালিমা, ইমাম ইত্যাদি কোম্পানির ব্যাটারি।

কোন কোম্পানির চার্জার ভালো

আপনার মোবাইলে কোন চার্জারটি ভালো হবে তা আপনার মোবাইলের কত ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট নিতে পারে তার উপর নির্ভর করে। যদি আপনার ফোনে সর্বোচ্চ ২০ ওয়ার্ড চার্জিং সাপোর্ট থাকে। সে ক্ষেত্রে আপনাকে ৬৫ ওয়ার্ড অথবা ১২০ ওয়ার্ড চার্জার ব্যবহার করে কোন পার্থক্য বুঝতে পারবেন না। কারন আপনার ফোনের সার্কিটে সর্বোচ্চ 20 ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট ব্যবহৃত হয়েছে। 

আপনার ফোন কেনার সময় বক্সের যে চার্জারটি দেয়া হয়েছিল সেটাই আপনার ফোনের জন্য সেরা চার্জার। বলা যেতে পারে ফোন কেনার সময় যে চার্জারটি ফোনের সাথে পাওয়া যায়। সেটাই ফোনের অরজিনাল চার্জার ফোনের অরজিনাল চার্জার দিয়ে ফোন ব্যবহার করলে ফোন অনেকদিন লাইফটাইম সাপোর্ট করবে।

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার ১৩টি উপায়

২০% পার্সেন্টের নিচে চার্জ নয়ঃ আমরা যখন মোবাইল ফোন ব্যবহার করি। তখন সর্বপ্রথম মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে মোবাইল ফোনের ব্যাটারি চার্জ ২০% নিচে যেন না যায়। কারণ মোবাইলে ব্যাটারি চার্জের ২০% নিচে আসে তখন মোবাইলের ব্যাটারির উপর চাপ বেশি পড়ে। যখন এই সমস্যাটা বেশি দিন ধরে চলে মোবাইলে ব্যাটারির আয়ু কমে আসে। তাই আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে ২০% মোবাইলে চার্জ না আসে। মোবাইলে ব্যাটারি চার্জ ২০% নিচে আসার আগে মোবাইল চার্জ দিতে হবে।

৮০%  থেকে ৯০%  এর ওপর চার্জ নয়ঃ মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে এটি একটি মাধ্যম। আমরা যখন মোবাইলে চার্জ দেই তখন আমাদের মোবাইলের চার্জ খেয়াল রাখতে হবে ৮০থেকে ৯০ এর মাঝে রাখার। অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যে, মোবাইল বিশেষজ্ঞ তার মতে, মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ৯০ % এর বেশি চার্জ হলে ব্যাটারি কার্যক্ষমতা কমে যায়। তাই আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে মোবাইলে ব্যাটারি চার্জ দেয়ার সময় যেন মোবাইলের চার্জ ৮০% বা 90% এর উপরে না যায়।

অপ্রয়োজনে ব্লুটুথ ও ওয়াইফাই বন্ধ রাখাঃ বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশ ইন্টারনেটের যুগ এ যুগে সবাই ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকে। আমরা যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করি। তারপরে অপ্রয়োজনে আমরা ইন্টারনেট কানেকশন অন রাখি। এটা সবার ক্ষেত্রে দেখা যায়। তাই শুধু শুধু ব্লুটুথ বা ওয়াইফাই অপশন চালু না রাখার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণে ব্লুটুথ ও ওয়াইফাই প্রয়োজনে অন করে রাখলে ব্যাটারির পাওয়ার বেশি দিন পর্যন্ত টিকে থাকে না। অযথা এই অপশন গুলো চালু রাখার মধ্যে আমরা অজান্তে ফোনের ব্যাটারি কার্যক্ষমতা দিন দিন কমিয়ে ফেলছি। তাই আমাদের উচিত আমাদের যখন ইন্টারনেট ও ব্লুটুথ কানেকশন ব্যবহার করা হয়ে যাবে। আমাদের নিজস্ব দায়িত্বে এই কানেকশনগুলো অফ করে রাখতে হবে। এভাবে আমরা মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখতে পারি।

মোবাইলে পাওয়ার সেভিং মোড চালু রাখাঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে একটি বিশেষ উপায় হল মোবাইলের সেভিং মোড অন রাখা। এতে করে ব্যাটারির কম পাওয়ার প্রয়োজন হয়। এর ফলে আমাদের মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখা যায়। সেজন্য মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার জন্য আমাদের সব সময় পাওয়ার সেভিং মোড ব্যবহার করতে হবে।

মোবাইলে ডার্ক মোড চালু রাখাঃ আমাদের স্মার্টফোনের ব্যাটারি কার্যক্ষমতা ভালো রাখার জন্য। ব্যাটারির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য সব সময় মোবাইলে ডার্ক মুড চালু রাখতে হবে। এতে করে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা অপচয় রোধ হবে ফলে ব্যাটারি দীর্ঘদিন ভালো থাকবে। তাই আমাদের মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার জন্য মোবাইলে ডার্ক মোড চালু রাখা উচিত।

মোবাইল ফোনের স্ক্রিনের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখাঃ মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে অন্যতম একটি উপায় হচ্ছে মোবাইল ফোনের ডিসপ্লের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা। মোবাইল ফোনে বাইটনেস কমে রাখলে মোবাইলে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এবং ব্যাটারি নষ্ট হওয়ার ক্ষমতা কমায়। তাই আমাদের যতদূর সম্ভব চেষ্টা করা উচিত মোবাইল ফোনের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা।

অতিরিক্ত তাপমাত্রায় এড়িয়ে চলাঃ অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যে মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ভালো রাখতে অতিরিক্ত তাপমাত্রায় এড়িয়ে চলা ভালো। কারণ অতিরিক্ত তাপমাত্রা কমিয়ে দেয়। তাই আমাদের উচিত অতিরিক্ত তাপমাত্রায় এড়িয়ে চলা।

মোবাইল ফোনের অরজিনাল চার্জার ব্যবহার করাঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় মধ্যে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ভালো রাখার জন্য মোবাইল ফোনের অরজিনাল চার্জার দিয়ে মোবাইল চার্জ দেওয়া উচিত। সাধারণত এক একটি মোবাইল ফোনের চার্জার এর ভোল্টেজ এক এক রকম হয়ে থাকে। মোবাইল ফোনের অরজিনাল চার্জার ব্যতীত অন্যান্য চার্জার ব্যবহার করলে মোবাইলে ব্যাটারি কার্য ক্ষমতা কমে যায়। এবং ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায়। সেজন্য আমাদের খেয়াল রাখা উচিত মোবাইল ফোনে অরজিনাল চার্জার ব্যবহার করা।

সঠিক নিয়মে চার্জ প্রদান করাঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল মোবাইল নিয়ম মেনে চার্জ প্রদান করা। প্রায় সময় মোবাইলের ব্যাটারি নষ্ট হওয়ার পিছনে কারণ হয়ে থাকে সঠিক নিয়মে চার্জ না দেওয়ার। তাই আমাদের মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখতে মোবাইল সঠিক নিয়মে চার্জ দেয়া উচিত।

মোবাইলে অটো আপডেট অফ করুনঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার জন্য মোবাইলের অটো আপডেট অফ করে রাখতে হবে। অটো আপডেট যদি অন থাকে তাহলে ব্যাটারি পাওয়ার খরচ বেশি হয়। কারণ ব্যাটারি ব্যাকআপ ছাড়া তো মোবাইল আপডেট হবে না। অটো আপডেট এর ফলে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। তাই আমাদের উচিত মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখতে অটো আপডেট অফ রাখা।

মোবাইল ফোনে অটোমেটিক লকটাইম কমিয়ে দিনঃ আপনি যদি আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখতে চান। সে ক্ষেত্রে আপনাকে আপনার ফোনের স্ক্রিন লক টাইম কমিয়ে দিতে হবে। কারণ যাতে ব্যাটারি পাওয়ার খরচ কম হয়। ফলে ব্যাটারি দীর্ঘদিন পর্যন্ত ভালো থাকে। সেজন্য মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ভালো রাখতে অটোমেটিক লকটাইম কমিয়ে দেওয়া উচিত।

মোবাইল ফোনে থ্রিডি ওয়ালপেপার ব্যবহার হতে বিরত থাকাঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার জন্য আমাদের ফোনে থ্রিডি ওয়ালপেপার ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। কারণ থ্রিডি ওয়ালপেপার ব্যবহার করলে ব্যাটারি পাওয়ার খরচ বেশি হয়। এর ফলে ব্যাটারি কার্যক্ষমতা কমে যায়। ফলে মোবাইলে ব্যাটারি অল্প সময় নষ্ট হয়ে যায়। সেজন্য সব সময় চেষ্টা করবেন মোবাইলে থ্রিডি ওয়ালপেপার ব্যবহার থেকে বিরত থাকার।

মোবাইলের চার্জ দেয়া অবস্থায় মোবাইল ব্যবহার থেকে বিরত থাকাঃ মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল মোবাইল চার্জ দেয়া অবস্থায় মোবাইল ব্যবহার থেকে বের হতে থাকা। কারণ সবচেয়ে বেশি যে কারণে মোবাইলে ব্যাটারি নষ্ট হয় তা হলো চার্জ দেয়া অবস্থায় মোবাইল ব্যবহার করা। এতে করে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা খুব দ্রুত কমে যায়। ফলে ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায়। তাই আমাদের উচিত মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখতে মোবাইল চার্জ দেওয়া অবস্থায় মোবাইল ব্যবহার হতে বিরত থাকা।

কোন কোম্পানির চার্জার ভালো কিছু প্রশ্ন উত্তর

প্রশ্নঃ ভালো মোবাইল চার্জার কোনটি?

উত্তরঃ আপনার ফোনে সর্বোচ্চ 20W চার্জিং সাপোর্ট থাকলে 65W অথবা 120W চার্জার ব্যবহার করে কোন পার্থক্য বুঝতে পারবেন না। কারণ আপনার ফোনের সার্কিটে সর্বোচ্চ 20W চার্জিং সাপোর্ট ব্যবহৃত হয়েছে। আপনার ফোন কেনার সময় বাক্সে যে চার্জারটি দেওয়া হয়েছিল সেটাই আপনার ফোনের জন্য সেরা চার্জার।

প্রশ্নঃ মোবাইল ফোন কত ভোল্টে চার্জ করা হয়?

উত্তরঃ ইনপুটে সাধারণত এসি (অলটারনেটিভ কারেন্ট) ১০০-২৪০ ভোল্ট লেখা থাকে। এর মানে এটি একটি সার্বজনীন ভোল্টেজ চার্জার এবং বিশ্বের যেকোনো জায়গায় এটি কাজ করবে। আউটপুটের পাশে সাধারণত ৫ভি (৫ ভোল্ট) এবং অ্যাম্পস (বৈদ্যুতিক চার্জ প্রবাহের হার) দেখা যায়।

প্রশ্নঃ মোবাইল চার্জার ইনপুট ও আউটপুট কি

উত্তরঃ একটি চার্জারের আউটপুট হল সর্বোচ্চ শক্তি এটি একটি ডিভাইসে সরবরাহ করতে সক্ষম। আপনার ডিভাইসের ইনপুট হল সর্বোচ্চ শক্তি এটি গ্রহণ করবে । সুতরাং, তাদের উভয়ের মধ্যে সবচেয়ে ধীর শক্তি নিন এবং দুর্ভাগ্যবশত, এটি আপনার সর্বোচ্চ চার্জ গতি।

প্রশ্নঃ ফোনের চার্জারের অংশ কি কি

উত্তরঃ এই সার্কিটে প্রধানত একটি স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমার, একটি ফুল ওয়েভ ব্রিজ রেকটিফায়ার এবং একটি 5V ভোল্টেজ রেগুলেটর IC (7805) থাকে। আমরা এই সার্কিটটিকে চারটি ভাগে ভাগ করতে পারি: (1) স্টেপ ডাউন এসি ভোল্টেজ (2) সংশোধন (3) পরিস্রাবণ (4) ভোল্টেজ নিয়ন্ত্রণ।

প্রশ্নঃ বেশি এম্পিয়ারের চার্জার দিয়ে ফোন চার্জ দিলে কি হয়?

উত্তরঃ উচ্চ Amp চার্জার ব্যবহার করা কি ঠিক? একটি উচ্চ অ্যাম্পেরেজ ব্যবহার করা ঠিক আছে এবং আপনার সেল ফোনের জীবনকালকে প্রভাবিত করবে না বা ফোনের ব্যাটারি বা অন্যান্য অভ্যন্তরীণ উপাদানগুলির ক্ষতি করবে না ৷ সাধারণত, একটি আনুষঙ্গিক যতটা শক্তি আঁকবে এটি পরিচালনা করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে, তাই উচ্চ অ্যাম্পেরেজ কোনও পার্থক্য সৃষ্টি করবে না।

সর্বশেষ কথাঃ মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় ২০২৪

যারা মোবাইলে ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় লিখে প্রশ্ন করেছেন। তারা আজকের পোস্টটি পড়ে আশা করি অনেক উপকৃত হবেন। যারা ফোনের ব্যাটারি নিয়ে চিন্তিত তাদের জন্য আজকের পোস্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মোবাইলে চালানোর জন্য ব্যাটারির সঠিক নিয়ম মেনে মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে। আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখতে পারবেন।

এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থেকে শেষ পর্যন্ত পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনার কোন বন্ধু যদি ফোনের ব্যাটারি নিয়ে চিন্তিত থাকে তাহলে তাকে আমাদের এই পোস্টটি তাকে শেয়ার করবেন। এরকম আরো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন।

Next Post Previous Post